বিএনপি মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই পারেনা-তথ্যমন্ত্রী  - DesherSomoy24.com
ঢাকাসোমবার , ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. নির্বাচন
  6. প্রচ্ছদ
  7. প্রধান খবর
  8. প্রবাসে বাংলা
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ব্যবসা ও বাণিজ্য
  12. রাজনীতি
  13. শিক্ষা ও সাহিত্য
  14. সব
  15. সারাদেশ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিএনপি মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই পারেনা-তথ্যমন্ত্রী 

Mohammad Ali Sumon
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২২ ৪:৪৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সোহাগ হাসানঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ বলেন, বিএনপি মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই পারেননা।রাজনৈতিকভাবে আত্মবিশ্বাসের সাথে মিথ্যা বলায় এওয়ার্ড পেয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়াও একে অপরকে টপকাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় বেশিরভাগ নেতাই মিথ্যাচার করেন।
দুঃসময়ের ত্যাগী নেতাকর্মীদের ক্ষমতায় আনা হবে। অর্থ দিয়ে রাজনীতি কেনা যাবেনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা শ্রম, মেধা ও ত্যাগ দিয়ে রাজনীতি টিকিয়ে রেখেছেন তাদেরকেই ক্ষমতায় আনা হবে, নেতা নির্বাচন করা হবে।
সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বিশেষ অতিথি ও বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা এখন বিশ্ব নেতারাও করেন। তারা দেশে এসে সবাই শেখ হাসিনার প্রশংসা করে গিয়েছ্বন।
কারন তারা শেখ হাসিনার উন্নয়ন দেখেন কিন্তু বিএনপি দেখেনা এবং তারাই শুধু প্রশংসা করেন না। আরও একটি পক্ষ আছে যাদের সারাদিন দেখা যায়না কিন্তু মাঝরাতে টিভির পর্দায় দেখা যায়না।
বিএনপি নির্বাচনের নাম শুনলেই ভয় পায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না তাই তারা নির্বাচন চান না। তাই তারা নির্বাচন ছাড়া মির্জা ফখরুলকে ক্ষমতায় আনতে চায়।
বিএনপির দু-একজন নেতা নতুন নির্বাচন কমিশন ভালো ও নিরপেক্ষ হয়েছে বলায় বিএনপির আরও মাথা ঘুরে গেছে। এখন তারা ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে, গুজব ও কুতসা রটানোর চেষ্টা করছে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রভাব রাজনীতিতে পড়ে জানিয়ে নেতাকর্মীদের এবিষয়ে সজাগ থাকতে বলেন তিনি।
শ্রমিকের মূল্য বেড়েছে ও তারা ভালো আছেন জানিয়ে তিনি বলেন, এখন একজন শ্রমিকের মূল্য দিয়ে তিনি ১২-১৫ কেজি চাল কিনতে পারেন।
দেশে আর কাঙ্গাল নাই উল্লেখ করে বলেন, এখন কেও মারা গেলে কাঙ্গাল ভোজ দিলে এখন আর কোনও কাঙ্গাল আসেনা, বড়লোকরাই আসে।
দেশে আর কাঙ্গাল খুঁজে পাওয়া যায়না। শুধু তাই নয় দেশে এখন আর গ্রামাঞ্চলেও আগের দিনের বাসীভাত পাওয়া যায়না। এটাই হলো প্রধানমন্ত্রীর কারিশমা।
তিনি আরও বলেন, দ্রব্যমূল্যের দাম বড় কথা নয় বরং ক্রয়ক্ষমতা আছে কি না এটাই বড় কথা কারন, যখন এক আনায় দুই কেজি চাল পাওয়া যেতো তখনো মানুষ দুর্ভিক্ষে মারা গেছেন। কিন্তু এখন মানুষ না খেয়ে মারা যায়না কারন মানুষের আয় ও ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে।
সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট কে.এম হোসেন আলী হাসানের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুস সামাদ তালুকদার এর সঞ্চালনায় সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে আয়োজিত সম্মেলনের উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলির সদস্য আব্দুর রহমান।
সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত আছেন কার্যনির্বাহী সদস্য বেগম আখতার জাহান, সদস্য ও সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনের সাংসদ প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস।
সম্মানিত বক্তা হিসেবে উপস্থিতি আছেন, সিরাজগঞ্জ-১ (কাজিপুর) আসনে সাংসদ তানভীর শাকিল জয়, সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের সাংসদ ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না, সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ, তাড়াশ ও সলঙ্গা আংশিক) আসনের সাংসদ ডা. আব্দুল আজিজ, সিরাজগঞ্জ-৪ (চৌহালী-বেলকুচি) আসনের সাংসদ মোমিন মণ্ডল, সিরাজগঞ্জ-৫ (উল্লাপাড়া) আসনের সাংসদ তানভীর আহমেদ।
উল্লেখ্য, এর আগে সর্বশেষ ২০১৫ সালের ৮ জানুয়ারী সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আজকের এই সম্মেলন ঘিরে একদিকে যেমন নেওয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি অন্যদিকে নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে এই সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব আসবে, প্রবীণ ও নতুনের নেতৃত্বে আরও শক্তিশালী হবে সিরাজগঞ্জ আওয়ামীলীগ এমনটাই প্রত্যাশা নেতাকর্মীদের।
সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক এই সম্মেলনে সভাপতি পদে ৪ জন, ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৫ জন প্রার্থী হয়েছেন।
সভাপতি প্রার্থীরা হলেন, সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. কে.এম হোসেন আলী হাসান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক সভাপতি সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, দলের সহ-সভাপতি ও সিরাজগঞ্জ জজ কোর্টের পিপি গাজী আব্দুর রহমান, সহ-সভাপতি এ্যাড. বিমল কুমার দাশ।
এবং সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুস ছামাদ তালুকদার, বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ড. জান্নাত আরা তালুকদার হেনরী, সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক শামছুজ্জামান আলো, জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ফারুক ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন সুইট।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।