ঢাকা ০৮:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভ্রমণ না করে পাসপোর্টে ভিসার সিল, গ্রেপ্তার ৬

মোহাম্মদ আলী সুমন, নিউজ ডেক্স।
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৮:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২০ জানুয়ারী ২০২৩ ৪২ বার পড়া হয়েছে
দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কোনো দেশ ভ্রমণ না করেও ভিসা প্রত্যাশীদের পার্সপোর্টে মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়ার মতো দেশের ভিসা, অ্যারাইভাল ও ডিপার্চারের জাল সিল বসিয়ে দে‌ওয়া হচ্ছে। আর ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য নেওয়া হচ্ছে ১০-১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের করা মামলায় দুই ট্রাভেল এজেন্সির মালিকসহ ছয় জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দেখতে হুবহু মালয়েশিয়ার ভিসা, অ্যারাইভাল ও ডিপার্চার সিল। এগুলো সাঁটানো হচ্ছে পাসপোর্টে। সে দেশে ভ্রমণ না করেও পাসপোর্টে দেখানো হচ্ছে ঘুরে আসার প্রমাণ। আর এসব করা হচ্ছে ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য।

সম্প্রতি রাজধানীর গুলশান থানায় একটি মামলা করে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস। অভিযোগ, মার্কিন ভিসার জন্য দুই আবেদনকারীর পাসপোর্টে মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়ার মতো দেশের ভিসার সিল ভুয়া।

তদন্তে দুইটি ট্রাভেল এজেন্সির সম্পৃক্ততা পায় পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় এজেন্সির মালিক ও দুই আবেদনকারীসহ ছয় জনকে।

ডিএমপি গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেছেন, ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য জালিয়াতির আশ্রয় নেয় ট্রাভেল এজেন্সিগুলো। ভিসা প্রতি নেয় ১০-১৫ লাখ টাকা। এভাবে তিন বছরে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় তারা।

রাজধানীর মতিঝিলে ‘ট্রাভেলারস ডায়েরী’ নামের এজেন্সিতে গিয়ে দেখা যায় তাদের কার্যক্রম বন্ধ।

অভিযুক্ত আরেক এজেন্সি রামপুরার খান টাওয়ারে। অফিসের একজন মালিকের নামই শোনেননি।

ট্যুর অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টিওএবি) সভাপতি শিবলুল আজম কোরেশী জানিয়েছেন, অভিযুক্ত এক এজেন্সি তাদের সদস্য হলেও অন্যটির লাইসেন্সই নেই।

পুলিশ বলছে, রাজধানীতে ভিসা জালিয়াতে জড়িত এমন এজেন্সির অর্ধশতাধিক।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ভ্রমণ না করে পাসপোর্টে ভিসার সিল, গ্রেপ্তার ৬

আপডেট সময় : ০৫:৪৮:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২০ জানুয়ারী ২০২৩

কোনো দেশ ভ্রমণ না করেও ভিসা প্রত্যাশীদের পার্সপোর্টে মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়ার মতো দেশের ভিসা, অ্যারাইভাল ও ডিপার্চারের জাল সিল বসিয়ে দে‌ওয়া হচ্ছে। আর ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য নেওয়া হচ্ছে ১০-১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের করা মামলায় দুই ট্রাভেল এজেন্সির মালিকসহ ছয় জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দেখতে হুবহু মালয়েশিয়ার ভিসা, অ্যারাইভাল ও ডিপার্চার সিল। এগুলো সাঁটানো হচ্ছে পাসপোর্টে। সে দেশে ভ্রমণ না করেও পাসপোর্টে দেখানো হচ্ছে ঘুরে আসার প্রমাণ। আর এসব করা হচ্ছে ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য।

সম্প্রতি রাজধানীর গুলশান থানায় একটি মামলা করে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস। অভিযোগ, মার্কিন ভিসার জন্য দুই আবেদনকারীর পাসপোর্টে মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়ার মতো দেশের ভিসার সিল ভুয়া।

তদন্তে দুইটি ট্রাভেল এজেন্সির সম্পৃক্ততা পায় পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় এজেন্সির মালিক ও দুই আবেদনকারীসহ ছয় জনকে।

ডিএমপি গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশীদ বলেছেন, ইউরোপ ও আমেরিকার ভিসার জন্য জালিয়াতির আশ্রয় নেয় ট্রাভেল এজেন্সিগুলো। ভিসা প্রতি নেয় ১০-১৫ লাখ টাকা। এভাবে তিন বছরে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় তারা।

রাজধানীর মতিঝিলে ‘ট্রাভেলারস ডায়েরী’ নামের এজেন্সিতে গিয়ে দেখা যায় তাদের কার্যক্রম বন্ধ।

অভিযুক্ত আরেক এজেন্সি রামপুরার খান টাওয়ারে। অফিসের একজন মালিকের নামই শোনেননি।

ট্যুর অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টিওএবি) সভাপতি শিবলুল আজম কোরেশী জানিয়েছেন, অভিযুক্ত এক এজেন্সি তাদের সদস্য হলেও অন্যটির লাইসেন্সই নেই।

পুলিশ বলছে, রাজধানীতে ভিসা জালিয়াতে জড়িত এমন এজেন্সির অর্ধশতাধিক।