ঢাকা ০৮:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো সুন্দরবনের রাশ পুজা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০৭:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর ২০২১ ৯৮ বার পড়া হয়েছে

পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো সুন্দরবনের রাশ পুজা

দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আলী আজীম, মোংলা, বাগেরহাটঃ সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে বঙ্গোপসাগর মোহনায় শুক্রুবার (১৯ নভেম্বর) সুর্যদয়ের সাথে সাথে স্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে রাসপুজা। এর আগে বৃহস্পতিবার পুজার সকল আনুষ্ঠানিকতা পালন করে সেখানে উপস্থিত সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বিরা। এবারে সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে রাস পূর্ণিমার পূর্ণ স্নান- রাসপুজার অনুমতি দেয়া হলেও সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সংরক্ষণের স্বার্থে রাস মেলা অনুমতি দেয়নি বন বিভাগ। পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকতার্ (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, এবারের রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানের জন্য সীমিত পরিসরে শুধুমাত্র সনাতন ধমার্বলম্বলীদের সেখানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। এবার রাস পূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠানে যেতে দেয়া হয়নি সনাতন হিন্দু ধর্মলম্বি ছাড়া অন্য ধর্মের কোন লোকজনকে। জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে সুন্দরবন বিভাগের অনুমতিপত্র (পাশ) নিয়ে বন বিভাগের দেখানো নির্দিষ্ট নৌপথ দিয়ে সনাতন হিন্দু পূণ্যাথর্ীরা এবার রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানে যেতে পেরেছেন। প্রতিবছর নভেম্বর মাসে রাস পূর্ণিমার তিথীতে বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা, পিরোজপুর, বরগুনা,পটুয়াখালী, ঝালকাঠি, বরিশাল ও চট্রগ্রামসহ দেশে- বিদেশের নানা প্রান্ত থেকে ২০ থেকে ৩০ হাজার সনাত হিন্দু পূণ্যার্থীসহ নানা ধর্মবর্ণের দেশীবিদেশী পর্যটকরা সুন্দরবনের আলোরকোলে রাস উৎসবে অংশ নিয়ে থাকেন। তবে এবার রাস পূর্ণিমার পূর্ণ স্নান- রাসপুজায় হিন্দু পূণ্যার্থীদের নিদৃষ্ট করে দিয়ে রাস উৎসব বা মেলা বন্ধ করে দেয়ায় লোক সমাগম অর্ধেকে নেমে এসেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

পুণ্যস্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো সুন্দরবনের রাশ পুজা

আপডেট সময় : ০৯:০৭:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর ২০২১

আলী আজীম, মোংলা, বাগেরহাটঃ সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে বঙ্গোপসাগর মোহনায় শুক্রুবার (১৯ নভেম্বর) সুর্যদয়ের সাথে সাথে স্নানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে রাসপুজা। এর আগে বৃহস্পতিবার পুজার সকল আনুষ্ঠানিকতা পালন করে সেখানে উপস্থিত সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বিরা। এবারে সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে রাস পূর্ণিমার পূর্ণ স্নান- রাসপুজার অনুমতি দেয়া হলেও সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সংরক্ষণের স্বার্থে রাস মেলা অনুমতি দেয়নি বন বিভাগ। পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকতার্ (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, এবারের রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানের জন্য সীমিত পরিসরে শুধুমাত্র সনাতন ধমার্বলম্বলীদের সেখানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। এবার রাস পূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠানে যেতে দেয়া হয়নি সনাতন হিন্দু ধর্মলম্বি ছাড়া অন্য ধর্মের কোন লোকজনকে। জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে সুন্দরবন বিভাগের অনুমতিপত্র (পাশ) নিয়ে বন বিভাগের দেখানো নির্দিষ্ট নৌপথ দিয়ে সনাতন হিন্দু পূণ্যাথর্ীরা এবার রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানে যেতে পেরেছেন। প্রতিবছর নভেম্বর মাসে রাস পূর্ণিমার তিথীতে বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা, পিরোজপুর, বরগুনা,পটুয়াখালী, ঝালকাঠি, বরিশাল ও চট্রগ্রামসহ দেশে- বিদেশের নানা প্রান্ত থেকে ২০ থেকে ৩০ হাজার সনাত হিন্দু পূণ্যার্থীসহ নানা ধর্মবর্ণের দেশীবিদেশী পর্যটকরা সুন্দরবনের আলোরকোলে রাস উৎসবে অংশ নিয়ে থাকেন। তবে এবার রাস পূর্ণিমার পূর্ণ স্নান- রাসপুজায় হিন্দু পূণ্যার্থীদের নিদৃষ্ট করে দিয়ে রাস উৎসব বা মেলা বন্ধ করে দেয়ায় লোক সমাগম অর্ধেকে নেমে এসেছে।