ঢাকা ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ৯ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ ::
ইউস্যাফের ঈদ আয়োজন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত বরকামতা ইউনিয়নবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানালেন আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দিন আহমেদ আওয়ামী লীগ নেতা কালীপদ মজুমদারের অর্থায়নে ঈদ সামগ্রী বিতরণ সুনামগঞ্জের শাল্লায় সংঘর্ষে ২ জন নিহত আহত ২০ একজন গ্রেফতার ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা এড. রফিকুল আলম চৌধুরী  ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী সুমন ছাতকে খালের পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু ক্ষমতার লোভে দেশের সম্পদ বিক্রি করবো এমন বাবার মেয়ে আমি না : প্রধানমন্ত্রী ঈদুল আযহার অগ্রীম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোস্তফা কামাল ঈদুল আযহার অগ্রীম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জিএস সুমন সরকার

কুমিল্লা উত্তর জেলা বিএনপি’র পদযাত্রায় পুলিশের টিয়ারসেল ফাঁকাগুলি ও লাঠিচার্জে আহত-১২

এস এম মাসুদ রানা।
  • আপডেট সময় : ১২:৩৩:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ১১৪ বার পড়া হয়েছে
দেশের সময়২৪ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কুমিল্লা উত্তর জেলা বিএনপি’র পদযাত্রা পন্ড হয়ে গেছে পুলিশের বাঁধায়। এতে পুলিশের টিয়ারসেল, ফাঁকাগুলি ও লাঠিচার্জে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের ১০/১২জন নেতাকর্মী আহত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেবীবদ্বার উপজেলার খাদঘর ও চান্দিনা উপজেলার কেরনখালে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা যায়, বিএনপির দলীয় কর্মসূচি পদযাত্রা সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লা উত্তর জেলা কমিটির উদ্যোগে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুরাদনগর উপজেলার গোমতা নামক স্থানে আয়োজন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুল নবী সোহেল। কিন্তু ওই স্থানের পুলিশ অনুমতি না দেওয়া তারা চলে আসেন ঢাকা- চট্রগ্রাম মহা সড়কের দেবীবদ্বার উপজেলা খাদঘর নামক স্থানে। সেখানে শান্তিপূর্ণভাবে পদযাত্রা শুরু করলে পুলিশ আবারো বাঁধা প্রদান করে। এতে পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হলে এক পর্যায়ে পুলিশ নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল ও ফাঁকা গুলি ছুড়ে।

এতে দুইজন গুলিবিদ্ধসহ ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।এ বিষয়ে কুমিল্লা (উঃ) জেলা বিএনপি’র সাবেক সহ-সভাপতি ঙ দেবিদ্বার উপজেলা বিএনপি সদস্য সচিব সোঃ শাহজাহান মোল্লা জানান, তারা মুরাদনগর উপজেলার গোমতা এলাকায় আমরা শান্তিপূর্ণভাবে পদযাত্রা করতে চাইলে পুলিশ বাঁধা দেয় এবং আওয়ামীলীগগ ওই স্থানে শান্তি সমাবেশের পূর্বানুমতি নিয়েছে বলে জানান।

আমরা ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের দেবীদ্বার উপজেলার খাদঘর এলাকায় পদযাত্রা করতে চাইলে পুলিশ বিনা উস্কানিতে লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল নিক্ষেপ এবং গুলিবর্ষণ করে। এতে দাউদকান্দি উপজেলার ২ নেতা গুলিবিদ্ধসহ ১০/১২জন আহত হওয়ার সংবাদ পেয়েছি।

আহতদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসীম উদ্দিন, কুমিল্লা (উঃ) জেলা বিএনপি’র অর্থ সম্পাদক আজহার মেম্বার, কুমিল্লা (উঃ) জেলা মহিলা দলের সভাপতি সুফিয়া বেগম, কুমিল্লা (উঃ) জেলা যুবদল নেতা ভিপি শাহীন। কুমিল্লা (ঊঃ) জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক তৌহিদ বাবু, দেবীদ্বার উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. রবিউল আউয়াল সাইফুল, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক অব্দুর রহমান, বিএনপি নেতা তাছলিমা বেগ, আলেয়া বেগম, রমজান হোসেন সহ ১০/১২জন।

আহতদের চান্দিনা, দাউদকান্দি, দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা কুমিল্লা (উঃ) জেলা মহিলা দলের সভাপতি ও দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া বেগম, মহিলা দল নেতা তাছলিমা বেগম, আলেয়া বেগম এর মধ্যে তাছলিমা বেগমের মাথা এবং হাতে বন্দুকের বাটের আঘাতে মারাত্মক জখম হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক তিনি মাথার আঘাতে বমি করায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেন।

এ ব্যপারে দেবীদ্বার উপজেলার ভাণী অস্থায়ী পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান হামলা ও আহত হওয়ার সত্যতা স্বীকার করে শনিবার বিকেলে বলেন এখন ব্যস্ত আছি, পরে বিস্তারিত জানাব বলে ফোনের সংযোগ কেটে দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

কুমিল্লা উত্তর জেলা বিএনপি’র পদযাত্রায় পুলিশের টিয়ারসেল ফাঁকাগুলি ও লাঠিচার্জে আহত-১২

আপডেট সময় : ১২:৩৩:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

কুমিল্লা উত্তর জেলা বিএনপি’র পদযাত্রা পন্ড হয়ে গেছে পুলিশের বাঁধায়। এতে পুলিশের টিয়ারসেল, ফাঁকাগুলি ও লাঠিচার্জে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের ১০/১২জন নেতাকর্মী আহত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেবীবদ্বার উপজেলার খাদঘর ও চান্দিনা উপজেলার কেরনখালে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা যায়, বিএনপির দলীয় কর্মসূচি পদযাত্রা সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লা উত্তর জেলা কমিটির উদ্যোগে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুরাদনগর উপজেলার গোমতা নামক স্থানে আয়োজন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুল নবী সোহেল। কিন্তু ওই স্থানের পুলিশ অনুমতি না দেওয়া তারা চলে আসেন ঢাকা- চট্রগ্রাম মহা সড়কের দেবীবদ্বার উপজেলা খাদঘর নামক স্থানে। সেখানে শান্তিপূর্ণভাবে পদযাত্রা শুরু করলে পুলিশ আবারো বাঁধা প্রদান করে। এতে পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হলে এক পর্যায়ে পুলিশ নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল ও ফাঁকা গুলি ছুড়ে।

এতে দুইজন গুলিবিদ্ধসহ ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।এ বিষয়ে কুমিল্লা (উঃ) জেলা বিএনপি’র সাবেক সহ-সভাপতি ঙ দেবিদ্বার উপজেলা বিএনপি সদস্য সচিব সোঃ শাহজাহান মোল্লা জানান, তারা মুরাদনগর উপজেলার গোমতা এলাকায় আমরা শান্তিপূর্ণভাবে পদযাত্রা করতে চাইলে পুলিশ বাঁধা দেয় এবং আওয়ামীলীগগ ওই স্থানে শান্তি সমাবেশের পূর্বানুমতি নিয়েছে বলে জানান।

আমরা ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের দেবীদ্বার উপজেলার খাদঘর এলাকায় পদযাত্রা করতে চাইলে পুলিশ বিনা উস্কানিতে লাঠিচার্জ, টিয়ারসেল নিক্ষেপ এবং গুলিবর্ষণ করে। এতে দাউদকান্দি উপজেলার ২ নেতা গুলিবিদ্ধসহ ১০/১২জন আহত হওয়ার সংবাদ পেয়েছি।

আহতদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসীম উদ্দিন, কুমিল্লা (উঃ) জেলা বিএনপি’র অর্থ সম্পাদক আজহার মেম্বার, কুমিল্লা (উঃ) জেলা মহিলা দলের সভাপতি সুফিয়া বেগম, কুমিল্লা (উঃ) জেলা যুবদল নেতা ভিপি শাহীন। কুমিল্লা (ঊঃ) জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক তৌহিদ বাবু, দেবীদ্বার উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো. রবিউল আউয়াল সাইফুল, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক অব্দুর রহমান, বিএনপি নেতা তাছলিমা বেগ, আলেয়া বেগম, রমজান হোসেন সহ ১০/১২জন।

আহতদের চান্দিনা, দাউদকান্দি, দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা কুমিল্লা (উঃ) জেলা মহিলা দলের সভাপতি ও দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া বেগম, মহিলা দল নেতা তাছলিমা বেগম, আলেয়া বেগম এর মধ্যে তাছলিমা বেগমের মাথা এবং হাতে বন্দুকের বাটের আঘাতে মারাত্মক জখম হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক তিনি মাথার আঘাতে বমি করায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেন।

এ ব্যপারে দেবীদ্বার উপজেলার ভাণী অস্থায়ী পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান হামলা ও আহত হওয়ার সত্যতা স্বীকার করে শনিবার বিকেলে বলেন এখন ব্যস্ত আছি, পরে বিস্তারিত জানাব বলে ফোনের সংযোগ কেটে দেন।