ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলার দুই আসামী গ্রেফতার - DesherSomoy24.com
ঢাকাশুক্রবার , ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খেলা
  4. জাতীয়
  5. নির্বাচন
  6. প্রচ্ছদ
  7. প্রধান খবর
  8. প্রবাসে বাংলা
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ব্যবসা ও বাণিজ্য
  12. রাজনীতি
  13. শিক্ষা ও সাহিত্য
  14. সব
  15. সারাদেশ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলার দুই আসামী গ্রেফতার

Mohammad Ali Sumon
ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২২ ২:৩০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজারঃ অপহরণ পরবর্তী ধর্ষিতার আত্মহত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত ধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচনায় মামলার প্রধান দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

কক্সবাজারের পেকুয়ায় থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি রাতে চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, চট্টগ্রামের বাঁশখালী ছনুয়া ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মকছুদ আহমদের ছেলে আবুল কাশেম (২০) এবং পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত আবুল হোসন প্রকাশ বাদশাহর ছেলে মো. আলমগীর (২০)।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, পেকুয়া থানায় দায়েরকৃত ধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলার আসামীরা চট্টগ্রামে অবস্থান করছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে এসআই নাদির শাহ্’র নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম হালিশহর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার সকালে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী আরও জানান, ২০২১ সালের ২৭ জুলাই পেকুয়া রাজাখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আইয়ুব আলীর কিশোরী মেয়ে রেখা মনি (১৪) কে অপহরণের পর জোর পূর্বক ধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনার অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেচে নেয় ধর্ষিতা রেখা মনি। অপহরণ করে ধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে নিহতের পিতা বাদী হয়ে পেকুয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই আবুল কাশেম ও আলমগীরকে আসামী করা হয়েছিল।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।